Dr. Hamid Rabb

Public
আমার বাবা কৃষক হলেও তিনি পার্ট-টাইম শিক্ষকতা করতেন । গ্রামের ইমাম হিসাবে তিনি মানুষকে ইসলামিক শিক্ষা দিতেন। আমার প্রথম স্কুল বসত আমাদের গ্রামের কাঁচা রাস্তার উপর। আমরা ছাত্ররা পাটের বস্তার উপর বসে বাশের কঞ্চির কলম ও কয়লার গুঁড়ার কালি দিয়ে তালপাতার উপর লেখতাম। আমরা বাচ্চারা মুষ্টি ভিক্ষার চাল সংগ্রহ করে বিক্রি করতাম। সেই চাল বিক্রির টাকা দিয়ে আমাদের প্রধান শিক্ষক নোয়াখালির মৌলভী সাহেবের বেতন দিতাম। আমার বাবা সেচ্ছাসেবক শিক্ষক হিসাবে প্রত্যেক দিন সেই স্কুলে ঘনটা দুই পড়াতেন। আমার স্বশুর ও দুজন সম্বন্ধী কলেজের শিক্ষক ছিলেন। আমি নিজে শিক্ষকতা করেছি চল্লিশ বছরের বেশি সময়। এরপর আমার ছেলে। সে একটি আমেরিকান বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসক প্রফেসর । সে বিয়ে করলো ডক্টর কুদরতে খোদার নাতনিকে। সে বৌ একজন আমেরিকার শিক্ষক। সবার শেষে আসলো আমার ছেলের দ্বিতীয় ছেলের বৌ। আমার নাতবৌ। তার জন্ম আমেরিকায় কিন্তু আসলে সে একজন চট্টগ্রামের মেয়ে। সে শুধু শিক্ষকই না, সে তার তিনটা মাস্টার্স ডিগ্রী শেষ করেছে শিক্ষাক্ষেত্রে। আগামী জুলাই মাসে সে তার ডক্টরেট ডিগ্রির পড়াশোনা শুরু করবে ঐ একই বিষয়ে।